Othersপত্র রচনা

পত্র রচনা – পত্র রচনার কয়েকটি পালনীয় নির্দেশ

পত্র রচনা: চিঠিপত্র রচনা মানবজীবনের একটি অপরিহার্য অঙ্গ। নানা প্রয়ােজনে মানুষকে চিঠি লিখতে হয়। প্রয়ােজন এবং বিষয় অনুযায়ী চিঠির ধরনও বিভিন্ন রকম। ব্যক্তিগত চিঠি যেভাবে লেখা হয়, বৈষয়িক, সামাজিক বা বাণিজ্যিক প্রয়ােজনে সেভাবে লেখা হয় না। এদিকে লক্ষ রেখে চিঠিপত্রকে সাধারণভাবে চারটি শ্রেণিতে ভাগ করা হয়ে থাকে—

  • ১. ব্যক্তিগত চিঠি, সামাজিক চিঠি,
  • ৩. বৈষয়িক বা ব্যাবহারিক চিঠি,
  • ৪. ব্যাবসায়িক চিঠি।

প্রত্যেক প্রকার চিঠির জন্য আছে বিশেষ ধরনের আঙ্গিক, বিশেষ প্রকাশরীতি।

এটিও পড়ুন – একটি বই পড়ে তােমার ভালাে লেগেছে। কেন ভালাে লেগেছে, জানিয়ে বন্ধুকে পত্র

পত্র রচনার কয়েকটি পালনীয় নির্দেশ

  •  চিঠির শ্রেণি অনুযায়ী আঙ্গিক ও প্রকাশরীতির স্বাতন্ত্র্য বজায় রাখতে হবে।
  •  সব ধরনের চিঠিতেই পত্রপ্রেরকের নাম-ঠিকানা ও তারিখ থাকা বাঞনীয়।
  •  প্রাপকের নাম-ঠিকানা যথাসম্ভব স্পষ্ট করে লেখা দরকার।
  •  ব্যক্তিগত চিঠির ক্ষেত্রে পত্রলেখকের স্বাধীনতা অনেক বেশি। প্রয়ােজনে আবেগ-উচ্ছাসেরও স্থান হতে পারে সেখানে। ব্যক্তিগত চিঠিতে অনেক বিষয়ই থাকে যা কেবল প্রেরক ও প্রাপকের মধ্যে সীমাবদ্ধ। তবু এই ধরনের চিঠিও যথাসম্ভব মার্জিত ও সুরুচিপূর্ণ হওয়া উচিত।
  • চিঠির মধ্যে পরিমিতিবােধের অভাব ঘটলে অনেক সময় ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিগত সম্পর্কও খারাপ হয়ে যেতে পারে।
  •  সামাজিক, বৈষয়িক বা বাণিজ্যিক চিঠির ক্ষেত্রে সম্বােধন থেকে শুরু করে প্রতিটি বিষয়েই সতর্কতা অবলম্বন করা দরকার।
  • এই ধরনের চিঠিতে বক্তব্যের স্পষ্টতা এবং বাহুল্যহীনতা খুবই প্রয়ােজন। খেয়াল রাখতে হবে, আবেগ-উচ্ছ্বাস, পুনরুক্তি বা ঔদ্ধত্যপূর্ণ কোনাে ভঙ্গি যেন প্রশ্রয় না পায়।
  •  ব্যাকরণগত দিক থেকে চিঠির ভাষা শুদ্ধ হওয়া প্রয়ােজন।
  •  চিঠিতে একাধিক বিষয়ের অবতারণা করা হলে প্রতিটি বিষয়ের জন্য পৃথক পৃথক অনুচ্ছেদ করা প্রয়ােজন।
  • ব্যক্তিগত চিঠির ক্ষেত্রে একসময় চিঠির একেবারে উপরে কোনাে মঙ্গলাচরণ বা স্বস্তিবাচন (যেমন—ওঁ’, ‘শ্রী’, ‘শ্রীশ্রী দুর্গাসহায়’, ‘এলাহি ভরসা’, ‘খােদা হাফেজ প্রভৃতি) লেখার রীতি ছিল। তবে ইদানীং এই রীতির প্রচলন বেশ কমে গেছে।
  •  ক্ষেত্রবিশেষে ব্যক্তিগত চিঠিকে সাহিত্যগুণান্বিত করে তােলার অবকাশ থাকে। সেসব ক্ষেত্রে কল্পনাশক্তিকে যেমন কাজে লাগাতে হবে, তেমনি নজর রাখতে হবে ভাষাগত সৌন্দর্যের দিকে।

এটিও পড়ুন – রূপচর্চায় অ্যালোভেরার চমৎকার কিছু ব্যবহার #১ টিপস

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button