বাংলা ব্যাকরণVideo

প্রতিবেদন রচনা লেখার সঠিক নিয়ম

প্রতিবেদন কী? প্রতিবেদন লেখার নিয়ম Drafting of Report

প্রতিবেদন রচনাঃ প্রতিবেদন কথাটির অর্থ হল বিবরণী বা রিপাের্ট। সংবাদ পরিবেশন করাকে সাধারণভাবে ‘প্রতিবেদন’ বলা হয়। সাধারণত সংবাদপত্রে প্রকাশের জন্য কোনাে বিষয়কে যেভাবে তুলে ধরা হয় তাকেই বলা হয় প্রতিবেদন। এক কথায়, ‘প্রতিবেদন’ হল রিপোর্ট বা বিবরণী।

‘সংবাদ’ বলতে বোঝায় কোনো কিছু সম্বন্ধে বিশেষ কিছু তথ্য যাকে চলতি কথায় ‘খবর’ বলা হয়ে থাকে। আর যিনি এই প্রতিবেদন রচনা করেন তাঁকে বলা হয় প্রতিবেদক। সংবাদপত্রে প্রকাশের উদ্দেশ্য ছাড়াও প্রতিবেদন রচিত হতে পারে। যেমন, কোনাে প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনের বিভিন্ন কাজের বিবরণ দিয়েও প্রতিবেদন রচিত হয়ে থাকে। এরকম ক্ষেত্রে সেইসব প্রতিবেদন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনের সদস্যবৃন্দের সামনে কোনাে সভায় পঠিত হয় কিংবা তাঁদের মুখপত্রে প্রকাশিত হয়। তবে সাধারণভাবে প্রতিবেদন বলতে বুঝি সংবাদপত্রে প্রকাশের উপযােগী বিবরণ।

বর্তমানে সংবাদ মানুষের জীবনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সংবাদ বা প্রতিবেদন যেমন পরিবর্তনশীল তেমনি বাস্তব। সত্য ও বিশ্বাসযোগ্যতাকে মাথায় রেখে এটি রচনা করতে হয়। যথার্থ সংবাদ হবে নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ। মনে রাখতে হবে ইংরেজিতে যাকে Reporting বলে বাংলায় তাকেই প্রতিবেদন বলে। তাছাড়া, প্রতিবেদন যে শুধু সংবাদপত্রের উদ্দেশ্যেই লিখিত হয় তা কিন্তু নয়। কোনো প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনের উদ্দেশ্যেও রচিত হতে পারে।

প্রতিবেদন রচনা লেখার সঠিক নিয়ম

প্রতিবেদন নানারকমের হতে পারে। যেমন, রাজনৈতিক, পরিবেশমূলক, খেলাধুলা- বিষয়ক, অপরাধমূলক, অনুসন্ধানমূলক, শিল্পসংস্কৃতি-বিষয়ক প্রভৃতি। প্রতিবেদনের বিষয় যাই হােক না কেন, প্রতিবেদন রচনার সময় কয়েকটি বিষয়ের দিকে সতর্ক থাকা দরকার।

  1.  প্রতিবেদনের ভাষা হবে সহজ-সরল। অপ্রচলিত ও দুরূহ শব্দব্যবহার থেকে যথাসম্ভব বিরত থাকতে হবে।
  2.  প্রতিবেদন হবে বিষয়ের যথাযথ বিবরণ। রচনাকে আকর্ষণীয় করে তুলতে গিয়ে কল্পনাকে প্রশ্রয় দেওয়া অনুচিত। তথ্যনিষ্ঠা প্রতিবেদন রচনার একটি শর্ত।
  3.  নিজস্ব মতামত প্রকাশ বা সমালােচনা করা থেকে যথাসম্ভব দূরে থাকা উচিত।
  4.  তথ্যবিকৃতি না ঘটিয়ে প্রতিবেদনটিকে আকর্ষণীয় করে তােলার চেষ্টা করতে হবে।
  5. প্রতিবেদন হবে নিরপেক্ষ। বিশেষ কোনাে রাজনৈতিক দল বা ধর্মসম্প্রদায়ের প্রতি পক্ষপাত বা বিরূপতা যেন প্রকাশ না পায়।
  6.  প্রতিবেদনের শিরােনামটি এমন হওয়া উচিত যাতে সেই শিরােনামের মধ্য দিয়ে প্রতিবেদনের বিষয় সম্পর্কে পাঠক সহজেই ধারণা করে নিতে পারেন।
  7.  প্রতিবেদনটি আয়তনে বড় হলে সেটিকে বিভিন্ন অনুচ্ছেদে ভাগ করতে হবে। তবে লক্ষ রাখতে হবে, বিভিন্ন অনুচ্ছেদের মধ্যে যেন ধারাবাহিকতা বজায় থাকে।
  8.  পুনরাবৃত্তি বর্জন করতে হবে। অনেক সময়ে একটি প্রতিবেদনে একই কথা বারবার বলা হয়। সেটা বাঞ্ছনীয় নয়।
  9.  ভাববাচ্যের ব্যবহারে প্রাধান্য থাকা দরকার।
  10. প্রতিবেদন রচনার মধ্যে যেন ধারাবাহিকতা বজায় থাকে।
  11. প্রতিবেদনের শিরোনাম আকর্ষণীয় ও অর্থবহ হওয়া উচিত, যার মধ্যে ভেতরের সংবাদের গুরুত্ব প্রকাশ পাবে
  12.  প্রতিবেদনের মাধ্যমে জনমানসে কখনােই যেন কোনো বিভ্রান্তি ছড়িয়ে না পড়ে সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে।
  13. প্রতিবেদনের শিরোনাম যেন অতি সংক্ষিপ্ত হয়।

এটিও পড়ুন – দশে মিলে করি কাজ, হারি জিতি নাহি লাজ – ভাব

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button