ভাবসম্প্রসারণOthersস্বাস্থ্য

তুলসির গুনা গুন, তুলসি পরিচয় এবং উপকারিতা Holy Basil

সনাতন হিন্দু পরিবারের প্রত্যেক বাড়ীতেই তুলসী গাছ, লক্ষ্য করা যায়, কিন্তু অনেক আছেন তুলসির গুনা গুন সম্পর্কে এখন ও জানেন না। আপনারা যারা তুলসির পরিচয় তুলসির গুনা গুন সম্পর্কে জানেন না তাদের জন্য এই পোষ্ট। 

তুলসি পাতার পরিচয়

*তুলসী একটি ঘন শাখা প্রশাখা বিশিষ্ট ২/৩ ফুট উঁচু একটি চিরহরিৎ গুল্ম। এর মূল কাণ্ড কাষ্ঠল, পাতা ২-৪ ইঞ্চি লম্বা হয়। পাতার কিনারা খাঁজকাটা, শাখাপ্রশাখার অগ্রভাগ হতে ৫ টি পুষ্পদণ্ড বের হয় ও প্রতিটি পুষ্পদণ্ডের চারদিকে ছাতার আকৃতির মত ১০-২০ টি স্তরে ফুল থাকে। প্রতিটি স্তরে ৬টি করে ছোট ফুল ফোটে। এর পাতা, ফুল ও ফলের একটি ঝাঁঝাল গন্ধ আছে। বাংলাদেশ ও ভারতের প্রায় সর্বত্র দেখা যায়। হিন্দুবাড়িতে বেশি দেখা যায়, পূজায় ব্যবহার হয়। ভারতে বাণিজ্যক ভাবে চাষ হয়। জুলাই আগস্ট বা নভেম্বর ডিসেম্বর এতে মঞ্জরী দেখা দেয়। সমতলভূমি থেকে শুরু করে হিমালয়ের পাদদেশে প্রায় ৬০০০ ফুট উচ্চতা পর্যন্ত এদের জন্মাতে দেখা যায় । অন্যান্য নাম- Tulsi, Trittavu, Tulshi, Holy basil ইত্যাদি। বৈজ্ঞানিক নাম- Ocimum tenuiflorum. 

এটিও পড়ুন – আদার উপকারিতা সম্পর্কে গোপন টিপস জানলে কাজে আসবে ১০০%

Holy Basil এই ইংরাজি নামটি সবার কাছে অজানা মনে হলেও এর বাংলা নাম তুলসি কিন্ত সবার কাছে অজানা নয়। কারন প্রায় প্রত্যেকের বাড়িতেই তুলসি গাছ আমরা দেখে থাকি। আমরা তুলসি গাছকে পূজা করে থাকি কিন্ত কখনও জেনেছি কী এর ভেষজ গুন ঠিক কতটা? আমাদের এটা জানা খুবই জরুরি যে তুলসি আমাদের জীবনের সবছেয়ে গুরুত্যপূর্ন ভেষজ উদ্ভিদ। তুলসি হল ভেষজ গুনের রানি।এর আনেক গুন থাকলেও এর গুরুত্যপুর্ন গুন গুলি হল-

তুলসির গুনা গুন

  • সর্দি কে খুব তাড়াতাড়ি সারাতে তুলসি পাতার রসের সাথে আদা ও মধু মিশিয়ে খেতে হবে। আবার গলার খুস খুস কমাতে শুধু মুখে কয়েকটা পাতা চিবিয়ে খেলে একটু আরাম পাওয়া যায়।
  • মুখের যে কোন সংক্রমন কে ঠিক করতে সাহায্য করে এই তুলসি। মুখের ব্যাক্টেরিয়া ও মুখের দুরগন্ধকে দূর করে এই পাতা।
  • দাতের হলদে ভাব দূর করতে ও মারিকে শক্ত করতেও প্রতিদিন নিয়মিত তুলসি পাতা খাওয়া উচিৎ।
  • যারা SMOKER তাদের জন্য খুবই উপকারি কারন এর মধ্যে থাকা Antioxidant Anticarcinogenic উপাদান মুখের ক্যানসার থেকে দূরে রাখে।
  • ডেঙ্গু অথবা ম্যালেরিয়া হলে তুলসি সিদ্ধ জল খেলে অনেক আরাম পাওয়া যায়। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রন, বোমি ভাবও দুর করে।
  • তকের বিভিন্ন সমস্যা যেমন ব্রোনো দূর করতে তুলসির সাথে নীম পাতা ও চন্দন বেটে নিয়ে পেস্ট বানিয়ে লাগালে ব্রোনো কমে যায়। তাছাড়া মুখের যে কোন কালো দাগ দূর করতে তুলসির সাথে ব্যাসন মিসিয়ে পেস্টটি লাগালে দাগ দূর হয়।
  • তুলসি পাতা চন্দনের সাথে পেস্ট করে বামের মতন লাগালে মাথা ব্যাথা দূর হয়।
  • প্রতিদিন নিয়মিত ১০ থেকে ১২ টি করে পাতা খেলে মানসিক চাপকে দূরে রাখে এবং Liver কে পরিষ্কার রাখে বা Liver –এ পাথর জমতে বাধা দেয়।

তুলসি গাছের উপকারিতা

তুলসি গাছের পাতা প্রচুর অক্সিজেন তৈরি করে এবং গাছের চারপাশে স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ সৃষ্টি করে। তুলসি পাতা প্রাচীনকাল থেকেই নানান রোগের ঔষধ হিসেবে হয়েই চলেছে। অনেক গুণ সমৃদ্ধ তুলসি রুচিকারক, পুরনো জ্বরে মহৌষধির কাজ করে এবং বাতনাশক। মশার উপদ্রব থেকে রক্ষা করে এবং বিশুদ্ধ বায়ু যোগানে সাহায্য করে। তুলসির উপকারিতা ও স্বাস্থ্য গুণ তুলসি পাতা হল এমন একটি পাতা যার মধ্যে নানা ওষুধের গুনে ভরা, তাই এই পাতার কদর সবার কাছে। তুলসি পাতার মধ্যে থাকা প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টি অক্সিডেন্ট -এর কারনে এটি ক্যান্সার প্রতিরোধের কাজ করে। তুলসি শক্তিশালী অ্যান্টিবায়োটিক হিসেবেও দারুণ কাজ করে।
তুলসি পাতা ছত্রাক ও অন্যান্য জীবাণুনাশকেরও কাজ করে। শীতের সময় মানুষের শরীরে নানা রোগের উৎপাত শুরু হয়, সেই উৎপাত থেকে রক্ষা করতে তুলসি পাতার ভুমিকা অতুলনীয়।

•তুলসী চয়ন মন্ত্র •

ওঁ তুলস্যমৃতনামাসি সদা ত্বং কেশবপ্রিয়া ।
কেশবার্থে চিনোমি ত্বাং বরদা ভব শোভনে ॥
ত্বদঙ্গ সম্ভবৈঃ পত্রৈঃ পুজয়ামি যথা হরিম্।
তথা কুরু পবিত্রাঙ্গি কলৌ মলবিনাশিনি ॥

•স্নান করে এই মন্ত্র পাঠ করতে করতে ডান হাত দিয়ে বোঁটা সহ পাতা ও মঞ্জরী ছিঁড়ে কোন পাত্র/ ঝুড়িতে রাখতে হবে।

•নিষেধ…
দ্বাদশী, পুর্নিমা ,অমাবস্যা, সন্ধ্যাবেলা,রাত্রে, সংক্রান্তিতে তুলসী চয়ন।

•তুলসী গাছের ডাল ভাঙা নিষিদ্ধ।

তুলসি স্নান মন্ত্র
ওঁ গোবিন্দবল্লভাং দেবিং ভক্তচৈতন্যকারিনিম ।
স্নাপয়ামি জগদ্ধাত্রিং বিষ্ণুভক্তিপ্রদায়িনিম ।।

•তুলসী গাছে জল দেয়ার বাংলা মন্ত্র-
তুলসী তুলসী বৃন্দাবন, তুলসী তুমি নারায়ন তোমার মাথায় ঢালি জল, অন্তিমকালে দিও স্থল।

•তুলসী দেবীর প্রনাম মন্ত্র•
ওঁ বৃন্দায়ৈ তুলসিদেব্যৈ প্রিয়ায়ৈ কেশবস্য চ ।
কৃষ্ণ ভক্তিপ্রদে দেবী সত্যবত্যৈ নমো নমঃ ।।

(সুত্রঃ বিশুদ্ধ নিত্যকর্ম পদ্ধতি)

তুলসী পাতার উপকারিতা

প্রাচীন যুগ থেকে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা নিজ গৃহ ও আঙ্গিনায় পবিত্র জ্ঞানে তুলসি গাছ স্থাপন ও পূজা করে আসছে। মান্যতা আছে , যে গৃহে তুলসী গাছ থাকে, অশুভ শক্তি, কুদৃষ্টি সেই গৃহের কোন ক্ষতি করতে পারেনা। বিষ্ণু / নারায়ন পুজায় তুলসী অপরিহার্য। ধর্মীয় আচার তো বটেই, বিভিন্ন রোগে, তুলসী পাতার উপকারিতার কথা কম বেশি সবাই জানি আমরা। ঠাণ্ডা, কাশি, জ্বর, মাথা ব্যাথা, বদ হজমে, জীবাণুনাশক হিসেবে তুলসি পাতার জুড়ি নেই। বাড়তি গুণ হিসেবে এর রয়েছে প্রাকৃতিক শক্তিবর্ধক ও রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা। তাই আসুন, আমরা সবাই এই উপকারি ও পবিত্র গাছ আমাদের গৃহে স্থাপন করে এর যথাযথ সম্মান ও যত্ন করি

এগুলিও পড়তে পারেন -

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

2 + 6 =

Back to top button