পড়াশোনাস্কলারশিপ

কন্যাশ্রী প্রকল্প কী? কিভাবে আবেদন করবেন

কন্যাশ্রী প্রকল্পে কারা আবেদন করতে পারবেন এবং কত টাকা পাবেন জেনে নিন খুঁটি নাটি

কন্যাশ্রী প্রকল্পঃ পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচির অর্থাৎ প্রকল্পের নাম কন্যাশ্রী। রাজ্যের কিশােরী মেয়েদের প্রত্যেককে বিদ্যালয়ের আঙিনায় নিয়ে আসার আর এক নাম কন্যাশ্রী। আঠারাের আগে বিয়ে নয়। মেয়েদের বােঝানাের দায়িত্বের আরেক নামও কন্যাশ্রী। ১৮ বছর বয়স হওয়ার আগে বিয়ে না-করে নিয়মিত পড়াশােনা চালিয়ে যাওয়ার জন্য বিশেষ শর্তাধীনে মেয়েদের আর্থিক সুবিধা দেওয়ার প্রকল্পের নাম কন্যাশ্রী প্রকল্প। পুরােপুরি সরকারি আওতাধীন এই প্রকল্প বর্তমানে রাজ্যের সব জেলাতেই চালু হয়ে গেছে। এটিও পড়ুন – কন্যাশ্রী প্রকল্প সংক্ষিপ্ত রচনা – Kanyashree Prakalpa Paragraph

কন্যাশ্রী প্রকল্প কী? কিভাবে আবেদন করবেন

কন্যাশ্রী প্রকল্পটিতে তিন ধরনের আর্থিক সুবিধা দেওয়া হচ্ছে :

A) K1- বার্ষিক বৃত্তির পরিমাণ ১০০০টাকা। ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সি অবিবাহিতা মেয়েদের এই ভাতা দেওয়া যাবে। উপভােক্তাকে যে-কোনাে সরকার স্বীকৃত বিদ্যালয়ে বা সমতুল মুক্ত বিদ্যালয়ে অষ্টম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির মধ্যে পাঠরতা হতে হবে অথবা সমতুল কারিগরি/বৃত্তিমূলক পাঠক্রমের ছাত্রী হতে হবে।

B) K2-এককালীন এই বৃত্তির পরিমাণ ২৫,০০০ টাকা বৃত্তিদানের বছরে অনুর্ধ্ব ১৯ এবং ১৮ বছর অতিক্রান্ত অবিবাহিতা মেয়েরা এই বৃত্তি পাবে। উপভােক্তাকে সরকার স্বীকৃত বিদ্যালয় বা মহাবিদ্যালয়ে বা মুক্ত বিদ্যালয়ে পাঠরতা হতে হবে অথবা কারিগরি/ বৃত্তিমূলক পাঠক্রমের ছাত্রী হতে হবে। জে জে অ্যাক্ট, ২০০০-এর অধীনস্থ আবাসের আবাসিকারও এই বৃত্তি পাবে।

C) K3-যে সমস্ত কন্যাশ্রীরা ৪৫ নম্বর সহ স্নাতক হয়ে স্নাতকোত্তরে ভর্তি হবে তারা পাবে এই সুবিধা। বিজ্ঞান শাখায় পড়াশােনার জন্য প্রতিমাসে ২৫০০ টাকা এবং কলা ও বাণিজ্য বিভাগে পড়াশােনার জন্য প্রতি মাসে ২০০০ টাকা ভাতা পাওয়া যাবে। এছাড়াও আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণও মিলবে। সম্ভাব্য বৃত্তিপ্রাপকদের বার্ষিক পারিবারিক আয়ের ঊর্ধ্বসীমা আর রইল না। অনাথ মেয়েদের ক্ষেত্রে এবং পি. ড. ডি, অ্যাক্ট, ১৯৯৫ (প্রতিবন্ধী ব্যক্তি সমান সুযােগ, অধিকার সুরক্ষা ও পরিপূর্ণ অংশগ্রহণ আইন, ১৯৯৫) মােতাবেক ৪০% প্রতিবন্ধকতাযুক্ত মেয়েদের ক্ষেত্রে (স্বাস্থ্য এবং পরিবারকল্যাণ দপ্তর, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের স্বীকৃত মেডিক্যাল বাের্ডের শংসাপত্র মােতাবেক) অথবা জে জে আবাসের আবাসিকাদের ক্ষেত্রে পারিবারিক আয়ের উর্ধ্বসীমা সংক্রান্ত কোনাে বাধানিষেধ নেই।

আবেদনপত্র কোথায় পাওয়া যাবে এবং কীভাবে আবেদন করতে হবে 

  • রাজ্যের সমস্ত বিদ্যালয় এবং মহাবিদ্যালয়ে আবেদনপত্র পাওয়া যাবে। ছাপানাে এবং ক্রমিক নম্বরযুক্ত আবেদনপত্র উত্ত প্রতিষ্ঠানের হেফাজতে রাখা হয়েছে। এছাড়াও, সমাজকল্যাণ অধিকর্তা, পশ্চিমবঙ্গ সরকার, কলকাতা পুরসভা, সমস্ত মহকুমা শাসকের কার্যালয় এবং সব সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিকের কার্যালয় থেকেও আবেদনপত্র মিলবে।
  • কন্যাশ্রী প্রকল্পের উপভােক্তাদের সুবিধার্থে ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট খােলার জন্য একপাতার সরল আবেদনপত্র তৈরি করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে উক্ত ফর্মের মাধ্যমে উপভােক্তাদের নামে দ্রুত শূন্য ব্যালান্সের অ্যাকাউন্ট খুলতে অনুরােধ করা হয়েছে। উল্লেখ্য, সম্ভাব্য প্রাপকের নতুন অথবা পুরনাে যে-কোনাে একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকতেই হবে। ২৭টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক অথবা যে-কোনাে ব্যাংক যেখানে সরাসরি অ্যাকাউন্টে টাকা পৌছায়।
  • উপভােক্তাকে তার বিদ্যালয়/মহাবিদ্যালয়ের প্রধানের কাছে পূরণ করা ফর্মের সঙ্গে সব ধরনের শংসাপত্র জমা দিতে হবে।
  • প্রতিষ্ঠানের প্রধান দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিককে আবেদনপত্রের তৃতীয় পাতায় জন্মতারিখ এবং পড়াশােনা সংক্রান্ত তথ্যপঞ্জিতে উপযুক্ত শংসাপত্র দিতে হবে। তৃতীয় পাতার একদম শেষে ক্রমিকসংখ্যার অন্তর্গত শংসাপত্রগুলি দিতে পারবেন মেয়েটির বাসস্থান সংশ্লিষ্ট পুরসভার পুরপিতা/ বরাে সভাপতি/ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান/ বিধায়ক/ সাংসদ / উপভােক্তার বসবাসকারী ঠিকানার আওতাভুক্ত কেন্দ্রীয় অথবা রাজ্য সরকারের যে-কোনাে গ্রুপ-এ আধিকারিক।
  • আবেদনকারী ছাত্রীটির ফর্মে দেওয়া সমস্ত তথ্য wbkanyashree.gov.in এই পাের্টালে প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে তুলে দিতে হবে। এ ছাড়াও, আবেদনপত্রে লাগানাে রঙিন ছবি (১০০ kb) এবং পুরাে তৃতীয় পাতা (২০০ kb) স্ক্যান করে এই পাের্টালে তুলে দিতে হবে।
  • উপরে বলা তথ্যপঞ্জি পাের্টালে তােলার জন্য আবেদনপত্র পিছু ১০ টাকা কার্যালয় থেকে পাওয়া যাবে। প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানেরই নিজস্ব আই, ডি, এবং পাসওয়ার্ড ই-মেল করে প্রতিষ্ঠানকে জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে।
  • প্রতিষ্ঠানগুলিতে তথ্যপঞ্জি পাের্টালে তােলার সঠিক পরিকাঠামাে না থাকলে নিকটবর্তী সি এল আর সি সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিকের কার্যালয়ে উক্ত কাজ করা যেতে পারে।
  • বার্ষিক ১০০০ টাকা বৃত্তি দেওয়া হবে ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সি মেয়েদের, যারা অষ্টম থেকে দ্বাদশ শ্রেণিতে কিংবা সমতুল কারিগরি/প্রযুক্তিগত প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে পাঠরতা।
  • একাকালীন ২৫,০০০ টাকার বৃত্তি সেই সমস্ত অবিবাহিতা মেয়েদের ক্ষেত্রে প্রযােজ্য হবে, যারা অনতিক্রম ১৮ বছর বয়সি, যারা যে-কোনাে বিদ্যালয় বা কলেজে ভর্তির আবেদন/রেজিস্ট্রেশন করেছে। অথবা যারা যে-কোনাে কারিগরি/প্রযুক্তিগত পাঠক্রমে প্রশিক্ষিত হয়েছে বা যে-কোনাে স্বীকৃত খেলাধুলার সাথে যুক্ত রয়েছে কিংবা জে জে অ্যাক্ট ২০০০-এর অধীনস্থ আবাসের আবাসিকারা।
  • অনাথ মেয়েদের এবং প্রতিবন্ধী (8০% প্রতিবন্ধকতাযুক্ত) মেয়েদের অথবা জে জে আবাসের আবাসিকাদের ক্ষেত্রে পারিবারিক আয়ের উধ্ধ্বসীমায় কোনাে বাধানিষেধ নেই। সোর্স – উকিপিডিয়া ও ইন্টারনেট

ট্যাগঃ কন্যাশ্রী প্রকল্প ফর্ম, বিস্তারিত কন্যাশ্রী প্রকল্প

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button