Othersঅনলাইন ক্যারিয়ারচাকুরী

ছাত্র ছাত্রীদের জন্য সেরা অনলাইন জব Top 10 Online Job For Student

পার্টটাইম ও ফুলটাইম সেরা ১০ টি অনলাইন জব

অনলাইন জব ( Online Job) এই নিয়ে অনেকের মনে অনেক ধরনের জল্পনা-কল্পনা রয়েছে যার ফলে অনেক ছাত্র-ছাত্রী চেষ্টা করছে অনলাইনের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে এবং সুন্দর একটি হাই-ডিমান্ড চাকরি করার জন্য।

ছাত্র-ছাত্রীদের এক্সট্রা পকেট মানির জন্য অনেকে অনেক কাজ করে থাকে। তারা যদি একটু চোখ কান সজাগ রাখে টাকা আয় করে নিতে পারে বিভিন্ন উপায়ে। এমনকি শখের কাজ অর্থাৎ গেম খেলেও টাকা কামিয়ে নিতে পারে। বিশেষ করে যারা টাকা পয়সার অভাবে পড়াশোনা ইতি টানতে হয় তারা অসময়ে ব্লগিং, ফিলান্সিং, পেইড টু ক্লিক, আর্টিকেল রাইটিং, ডাটা এন্ট্রি ও গেম ইত্যাদি কাজ গুলি করে টাকা কামিয়ে নিয়ে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে।

ছাত্র ছাত্রীদের জন্য সেরা 10 টি অনলাইন জব

প্রথমে বলে রাখি অনলাইন জব (Online Job) আমাদের কাছে নতুন শব্দ মনে হলেও, উন্নত দেশগুলোতে এই চাকরি অনেক আগে থেকেই প্রচলিত আছে। ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য হাই ডিমান্ড এর কিছু অনলাইন চাকরি নিয়ে আলোচনা করব। কিভাবে অনলাইনে চাকরি গুলো পাবে এই বিষয় নিয়ে বিস্তারিত সকল তথ্য শেয়ার করবো। একইসাথে এই চাকরি গুলোর ভবিষ্যৎ কি এই নিয়ে সকল তথ্য দিব। শুরু করার আগে বলে নিতে চাই ছাত্র-ছাত্রী বন্ধুরা তোমরা অবশ্যই নিজের পড়াশুনার পাশাপাশি এগুলো করার চেষ্টা করবে

ব্লগিং – ব্লগ শুরু

সবচেয়ে সহজ ও সুন্দর আজীবন টাকা আয়ের মাধ্যম হল ব্লগিং। আমি আগের পোষ্টে ব্লগ ও ব্লগিং কি বিস্তারিত আলোচনা করেছি। তবু হালকা করে একটু বলে নিই। ব্লগ হচ্ছে মূলত ওয়েব ডাইরি এই ওয়েব ডাইরির মধ্যে আমরা বিভিন্ন আর্টিকেল লিখে বিভিন্ন কম্পানির মাধ্যমে আমরা টাকা আয় করতে পারি। পাঁচ মিনিটের মধ্যে একটি ব্লগ তৈরি করা যায় । ব্লগ তৈরি করার জন্য কোন পয়সা বা ডলার লাগে না। বিষয় নির্ধারণ করে আপনি ২ থেকে ৩ মাস নিয়মিত অর্থাৎ দিনে একটি বা তার বেশি পোষ্ট লিখুন দেখবেন সফল্যে দোরগোড়ায় আপনি পৌঁছে গেছেন। একজন সফল ব্লগার হতে পারলে আপনাকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হবে না। ব্লগ তৈরি করার জন্য অনেক প্লাটফর্ম আছে, তার মধ্যে আমি যেটি ভালো ও সহজ মনে করি সেটি ব্লগার ডট কম। রেজিস্টার করতে এখানে ক্লিক করুন। ব্লগে কিভাবে সাফল্য পাবেন জানতে এখনে ক্লিক করুন।

এটিও পড়ুন – ব্লগিং করে সহজে ইনকাম করার ৫টি উপায়

Freelancer Job(ফিলান্সিং অনলাইন জব)

প্রতিনিয়তই ফ্রিলান্সিং কাজের চাহিদা বেড়েই চলছে। ফ্রিলান্সিং ছাত্রছাত্রী আরেকটি মহৎ জব বলে আমি মনে করি। কেননা নেই কোন বাঁধাধরা সময়, নেই কোন টাকা ইনভেস্টমেন্ট বিষয়। যখন খুশি যেখানে খুশি আপনি কাজ করতে পারেন। ফ্রিলান্সিং এর জন্য যোগ্যতা কোন বালাই নেই, যে কেউ কাজ করতে পারে। ফিলান্সিং সাইট গুলোতে বিভিন্ন ধরনের কাজ পাওয়া যায়। অতএব যারা নতুন তারাও কাজ পেতে পারে। জনপ্রিয় ফ্রিলান্স সাইট গুলির মধ্যে যেমন – Odesk, Freelance, Guru, Upwork,Fiverr,99designs ইত্যাদি আরও এ রকম অনেক ফিলান্সিং সাইট রয়েছে। নেক্সট পোষ্টে কোন সাইটে কি ধরনের কাজ পাওয়া যায় সেগুলি নিয়ে বিশত আলোচনা করবো।

যারা অনলাইনে কাজ করতে চান তারা বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট ব্যবহার করে অনলাইনে কাজ করতে পারেন। কিছু কিছু কাজ করে ভাল পরিমাণ টাকা ইনকাম করা যায়। যেমন গ্রাফিক ডিজাইন, ওয়েবসাইট ডেভলপার, অ্যাপ ডেভলপার, ওয়েবসাইট ডিজাইন ইত্যাদি। তবে এই কাজ গুলো করতে অবশ্যই কাজ শেখতে হবে। তাছাড়া অনেক ছোট ছোট কাজ রয়েছে যেগুলো করতে অভিজ্ঞতার প্রয়োজন নেই। সচরাচর এই কাজগুলো করা হয়ে থাকে। ।

Call Center Work (কল সেন্টার অনলাইন জব)

অনলাইন কল সেন্টার ( Call Center Work ) জব উন্নত দেশগুলো ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে খুব জনপ্রিয় একটি কাজ। যদিও বর্তমানে ভারত ও বাংলাদেশ এর ভাল একটি প্রভাব সৃষ্টি হচ্ছে। এখন ছোট-বড় কোম্পানীগুলো তাদের সার্ভিস সম্পর্কিত সকল সমস্যা নিয়ে আলোচনা করার জন্য কল সেন্টার তৈরি করে। কিন্তু অনলাইন নির্ভর কোম্পানীগুলো তাদের কল সার্ভিস সেন্টার তৈরি করতে সমস্যার সম্মুখীন হলে শুরু হয় Home Call Center Work এবং এর ফলে ঘরে বসে এই চাকরি করা যায়৷ বর্তমানে সারা বিশ্বে অনলাইন নির্ভর অনেকগুলো কম্পানি তৈরি হচ্ছে ফলে এই কাজের জন্য অনেক মানুষের প্রয়োজন হচ্ছে এবং অধিকাংশ ছাত্র-ছাত্রীরা এই কাজে সুযোগ পাচ্ছেন।

Home Data Entry ( ডাটা এন্ট্রি অনলাইন জব )

ডাটা এন্টি অনেক আগে থেকেই আমাদের দেশে প্রচলিত একটি কাজ। বর্তমানে সারা দুনিয়াব্যাপি ছোট বড় সকল কোম্পানির অনলাইনের মধ্যে নিজেদের স্টোর খুলছে। তাদের পণ্য বা সেবার সকল তথ্য অনলাইনের মধ্যে প্রকাশ করে রেখেছে। এই কাজ করার জন্য ডাটা এন্টি যারা করে তাদের দরকার।

ডাটা এন্ট্রি কাজের দিন দিন চাহিদা বেড়েই চলছে। ছাত্র অবস্থা অবসরে এই কাজটি ঘড়ে বসে অনায়সে করা যেতে পারে। নিজে কোন কম্পানির হয়ে কাজ কিংবা যদি আপনার ১০ থেকে ১২ জন বন্ধু বা বান্ধবি থাকে তবে আপনি তাদের দিয়ে ডাটা এন্ট্রি কাজগুলি করিয়ে গ্রুপ পরিচালনা করেও টাকা কামিনে নিতে পারবেন। তবে কাজ টি ঠিক ঠাক ধরে থাকলে আশা রাখি ছাত্রদের পকেট মানি ছারাও বাড়তি খরচের টাকাও আয় করতে পারবেন।

Social media Manager (সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানাজার)

বর্তমানে পৃথিবীব্যাপী সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার খুব ভাল প্রভাব সৃষ্টি করেছে। বড় বড় সেলিব্রেটিরা তাদের সোশ্যাল অ্যাকাউন্টগুলো ম্যানেজ করার জন্য লোক নিয়োগ দিয়ে থাকে। এছাড়া বড় বড় কম্পানি বা ব্যাবসায়িকরা তাদের সোশ্যাল অ্যাকাউন্ট গুলো ম্যানেজ করার জন্য লোক নিয়োগ দিয়ে থাকে। এর ফলে অনেক ছাত্র-ছাত্রীরা ঘরে বসেই সকল কাজ করে ভালো পরিমাণ টাকা আয় করতে পারে। এজন্য সোশ্যাল মিডিয়া যেমন- ফেসবুক, টুঁটার, Instagram, pinterest ইত্যাদি সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকতে হবে।

পেইড টু ক্লিক

অনলাইনে সবচেয়ে কম সময়ের জব। যে কেউ এই কাজটি সহজে করতে পারে। বিশেষ কম্পিউটারের জ্ঞান না থাকলেও চলবে। PTC (পেইড টু ক্লিক ) অর্থাৎ অ্যাডে ক্লিক করে পয়সা কামানো। প্রতিদিন ১৫ থেকে ২০ মিনিট PTC তে কাজ কাজ করলে মাসের শেষে কম্পিউটারের নেট বালাঞ্চে ভরানো এবং হাত খরচের টাকা কামিয়ে নিতে পারবেন। ছাত্র অবস্থায় অবসর সময়ে সময় নষ্ট না করে PTC থেকে টাকা আয় করে পকেট মানি চালানো যায়। তবে PTC কাজ করতে গেলে ধর্য্য নিয়ে কাজ চালিয়ে নিতে হবে। অনেকে যে টা করে প্রথমে আগ্রহ নিয়ে শুরু করে কিন্তু কিছু দিন করার পর কাজ ছেরে দেয়। তাহলে কিন্তু সাফল্য আসবেনা। সাফল্যের মূল চাবিকাঠি হল নিষ্ঠা ও ধর্য্য ।

জনপ্রিয় PTC ওয়েবসাইট গুলির মধ্যে রয়েছে ySense, prizerebel ইত্যাদি। বর্তমানে ClixSense নাম পরিবর্তন করে ySense হয়েছে।

আর্টিকেল রাইটিং

যাদের লেখালিখির জ্ঞান আছে তারা অনায়সে আর্টিকেল রাইটিং কাজ টি করতে পারে। আর্টিকেল রাইটিং মানে কোন কিছু বিষয়ের উপর লেখা। সেটি হতে পারে আপনার পছনের ভাষাতে তবে ইংরেজিতে এই কাজের অনেক চাহিদা রয়েছে। তবে আপনি কোন কম্পানির হয়ে কাজ করলে তাদের দেওয়া বিষয়ের উপরেই লেখতে হবে। তবে আপনি নিজের ব্লগে আর্টিকেল লিখেও বেশ টাকা কামাতে পারেন। নেট সার্চ করলে এ রকম অনেক সাইট পাবেন যেখানে আর্টিকেল লেখলে আপনি তার বিনিময়ে টাকা পাবেন। আমি যে সাইটে কাজ করি চাইলে এখানে ক্লিক করে এক বার ঘুরেও আসতে পারেন।

আর্টিকেল রাইটিং এর মধ্যে যেমন Link-Able একটি জনপ্রিয় সাইট। এখানে আপনি একটি আর্টিকেলের জন্য ১০০ থেকে ১৫০ ডলার পর্যন্ত পাবেন। এছাড়াও রয়েছে Cracked.com , Watch Culture, Michelle Pippin ইত্যাদি।

প্লেয়িং গেম (অনলাইন জব)

সবচেয়ে শখের কাজ হল গেম খেলা। আর এই গেম খেলা থেকে যদি পকেট মানি হয় তবে আর চিন্তা কি। অনেক ছাত্র ছাত্রী আছে যারা গেম খেলে অনেক সময় নষ্ট করে। তারা যদি চোখ কান  খোলা রেখে যে সব ওয়েব সাইটে গেম খেলে টাকা আয় করা যায়, সেই সাইটগুলিতে সময় দেয় আশা রখি তাদের পকেট মানির টাকা সেখান থেকে পেতে পারে। এক ঢিলে দুই কাজ টাকা আয় প্লাস শখের গেম খেলা।

জনপ্রিয় ওয়েবসাইটগুলির বা অ্যাপ গুলির মধ্যে রয়েছে – Ludo Supreme, Ludo Ninja, Qrumble Box ,Carrom Clash, Pay Boz, Winzy, Zupee ইত্যাদি।

ভিডিও মেকিং (অনলাইন জব)

অনলাইন জব হিসেবে বর্তমানে ভিডিও বানিয়ে অনেকে লাখ লাখ টাকা রোজগার করছে। অনেকেই একে পেশা হিসেবে বেছে নিচ্ছেন। এর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হল Youtube এ ভিডিও Upload করে টাকা কামানো। সাধারণত স্মার্ট ফোন দিয়ে এই কাজ সহজে করা যায়।

বন্ধুরা, এবার আর বসে সময় নষ্ট না করে নিজের পছন্দের কাজ শুরু করে দিন আর নিজের সুন্দর কেরিয়ার গড়ে তলুন। পরিশেষে বলি Covid 19 লকডাউনেে  অনলাইন জব একটি জনপ্রিয় পেশায় পরিণত হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button